মানব জীবনের সাথে ভালোবাসা শব্দটা ওতোপ্রতোভাবে জড়িত। ভালোবাসা হলো প্রত্যেক ব্যক্তি জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আর ঠিক এই কারণেই আমাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষই এই ভালোবাসার প্রতি আকৃষ্ট হতে চায়। আর তারা পাগলের মত খুঁজতে থাকে একটি পার্টনার। একজন পার্টনার পেয়ে যাওয়ার পর আমাদের যেনো মনে হয় জীবনে যেনো সব থেকে মূল্যবান জিনিসটি অর্জন করে ফেলেছি। আর প্রথম প্রথম অনুভূতিটা এমন হয় যেনো এটাই আমাদের জীবনের প্রধান লক্ষ্য। কিছু দিনের পর থেকেই এই খুশির মুহূর্ত গুলো যেন পর পর হারিয়ে যেতে থাকে।

Advertisements
ad sample1
Advertisements
ad sample1

[আরও পড়ুন – ২০১৯ কেমন যাবে? আজ কর্কট রাশি! দেখে নিন বিস্তারিত কি কি প্রাপ্তি বা কি বিপদ আপনার..]

আর যে সম্পর্কের জন্য আমরা পাগল থাকি সেটা একসময় একঘিয়েমী ও বোরিং হতে থাকে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এই অবস্থার সৃষ্টি হয় আর এটাই স্বাভাবিক। আপনি নিজেই ভেবে দেখুন একসময় মেয়ে টিকে নিয়ে ঘুরতে বেড়াতে হলে অনেক বার ভাবতে হতো, আর এখন আপনি চাইলেই পেয়ে যান, আর সেই কারণেই দুজনের মধ্যে একটি দুরত্ব সৃষ্টি হয় ও সেই কারণেই একসময় নিজের ভারসাম্য হারিয়ে বিচ্ছেদের পথ বেছে নেন। তাই আপনাদের সম্পর্ক গুলো যে সঠিক পথে পরিচালিত করতে চাইলে এই কাজ গুলি মেনে চলুন…



১) লিমিট রেখে ফোন করুন। যদি আপনি ঘণ্টার পর ঘন্টা ফোনে কথা বলতে থাকেন তাহলে আপনার মানুষটি ভাববেন আপনি তার জন্য পাগল। তাকে ছাড়া আপনার এক মুহূর্ত সময় কাটে না। যখন কোনো মানুষ জেনে যাবে যে আপনি তাকে ছাড়া আপনার এক মুহূর্ত কাটতে চায় না তখন আপনার গুরুত্ব আসতে আসতে কমতে থাকবে। সে আপনাকে ইচ্ছে খুশি মতো চালনা করতে পারে, কষ্ট দিতে পারে কাঁদাতে পারে। অর্থাৎ যখন কেউ আপ্নার দুর্বলতার জায়গাটা জেনে ফেলে তখন তার ইচ্ছে মতো আপনাকে রাখতে চায়। সুতরাং আপনার ভালবাসার মানুষকে কখনোই জানতে দেওয়া উচিৎ নয় আপনার দুর্বলতার স্থানটি। তাই লিমিট রেখে ফোন করলে আপনার গুরুত্ব সে নিজে থেকেই বুঝতে পারবে। এই টিপস গুলি সর্বদা নয় মাঝে মাঝে ব্যবহার করুন আপনার সম্পর্ক কে মধুর করে তোলার জন্য।

[আরও পড়ুন – দ্রুত ধনী হতে চাইলে করুন শুধু এই ১টি কাজ, আপনাকে কেউ ধরতেই পারবেনা.. পড়ে জেনে নিন..]



২) সবসময় তার জন্য এভেলেবুল থাকবেন না। আপনি সর্বদা তার কথা তে সম্মতি দেবেন না তাহলে আপনি তার কাছে কোনো স্পেশাল মানুষ হয়ে থাকতে পারবেন না। তাই যদি নিজেকে স্পেশাল রাখতে চান তাহলে তার কাছে নিজেকে সর্বদা সহজলভ্য রাখবেন না। অনেক সময় পরিবারের সাথে সময় অতিবাহিত করুন। তাহলে সেই সময় টুকু সে আপনাকে গভীর ভাবে মিস করবে ও আপনার গুরুত্ব টুকু বুঝতে পারবে। আমরা সকলেই জানি যার কাছে আপনার গুরুত্ব বাড়তে থাকে তার প্রতি আমরা আকৃষ্ট বেশি হয়ে পড়ি।



৩) পরিস্থিতির সাথে নিজেকে আপডেট করতে থাকুন। আমাদের ব্রেন সর্বদাই নতুন জিনিস ও নতুন কে খুঁজতে চায়। যেমন আমরা কখনো একটা সিনেমা বার বার দেখতে পছন্দ করিনা, কখনো কখনো নতুন সিনেমা ও দেখতে চাই। সেই রকম আমরা সেই সব মানুষদের বেশি পছন্দ করি যারা পরিস্থিতির সাথে সাথে নিজেদের কে নতুন ভাবে উপস্থাপন করে। তাই আপনার ভালবাসার মানুষের সাথে নতুন কিছু নিয়ে আলোচনা করুন তাতে নিজেদের সম্পর্ক গুলো মধুর থাকবে।

Advertisements